মুছে ফেলা হয়েছে সুশান্তের একাধিক টুইট? তদন্তে নতুন মোর

সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকে পুলিশ সুশান্তের পরিচিতদের একের পর এক জেরা করেই যাচ্ছে। এবার তাদের এক পারিবারিক বন্ধু মুম্বাই পুলিশের কাছে আবেদন করলেন, যাতে সুশান্তের আরেক ঘনিষ্ঠ বন্ধুকে জেরা করা হয়। কারণ ওই পারিবারিক বন্ধুর অভিযোগ, ঘনিষ্ঠ বন্ধুই সুশান্তের ইনস্টাগ্রাম ও টুইটার অ্যাকাউন্ট নিয়ে ছেলেখেলা করছেন!

সুশান্ত শেষ ৩জুন ইনস্টাগ্রামে মায়ের সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করে আবেগঘন বার্তা লিখেছিলেন।সম্প্রতি অভিনেতার সেই পোস্টের নিচে সংগ্রাম সিং লিখেছেন, সুশান্তের রহস্য মৃত্যুতে সিবিআই তদন্ত করা হোক। মৃত্যুর পরও সুশান্তের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডল নিয়ে কেউ বা কারা যা ইচ্ছে তাই করে চলেছেন। এই মর্মে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান সুশান্ত পারিবারিক বন্ধু নীলোৎপল।

নীলোৎপল অভিযোগ, সুশান্ত যে সময় অভিনেতা হননি সেই সময় ওর ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিল সন্দীপ সিংহ। সন্দীপ প্রথমে সাংবাদিক ছিলেন। তারপর প্রোডিউসার হিসেবে যোগ দেন। কাজ করতেন সঞ্জয় লীলা বানসালীর সঙ্গে।অন্যদিকে সুশান্ত নিজের প্রতিভার জোরে হয়ে ওঠেন সুপারস্টার। তবে তাদের বন্ধুত্ব রয়ে যায় আগের মতোই অমলিন। ‘বন্দে ভারতম’ বলে সন্দীপ একটি ছবি করবেন ঠিক করেছিলেন। সেখানে সুশান্তের অভিনয় করার কথা ছিল।

এমনকি সুশান্তের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পড়ি সন্দীপ সবার প্রথমে তার বাড়িতে পৌঁছেছিলেন। তারপর তার সই করার পর ময়নাতদন্ত হওয়া সুশান্তের মৃতদেহ অভিনেতার স্বজনদের দেওয়া হয়। তার মানে এটাই বোঝায় এই ঘটনায় সন্দীপ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন বলে দাবি জানান নীলোৎপল। ঘটনার তদন্তে অভিনেতা সুশান্তের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল ও হ্যান্ডলগুলো খুঁটিয়ে পরীক্ষা করছে পুলিশ। পুলিশের ধরণা, এর আগেও সুশান্তের পোস্ট মুছে ফেলা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় সুশান্তের শেষ টুইট দেখা যাচ্ছে ২০১৯ সালের ২৭ ডিসেম্বরে