সাবধান! আপনি করোনার টিকা নেওয়ার পর যেসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখলে সতর্ক হবেন, জেনেনিন

করোনাভাইরাস আমাদের জীবনকে নানাভাবে প্রভাবিত করে চলেছে। নতুন নতুন সব উপসর্গ এবং করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের ঝুঁকিপূর্ণ এই সময়ে টিকা নেওয়া অত্যন্ত জরুরি হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটি কেবল আপনার গুরুতর অসুস্থতা এবং হাসপাতালে ভর্তির ঝুঁকিই কমায় না, ভাইরাসের বিস্তারকেও নিয়ন্ত্রণ করে। টিকা গ্রহণের পর অনেকের ক্ষেত্রে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। এটি সাধারণ। তবে কিছু লক্ষণ দেখলে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।

টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সাধারণ, কিন্তু ক্ষতিকর নয়

করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণ করলে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়া সাধারণ। ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসাবে সাধারণ কিছু লক্ষণ দেখা দিতে পারে তবে তা এক বা দুই দিনের মধ্যে হ্রাস পায়।

জ্বর, ঠান্ডা লাগা, ক্লান্তি এবং ইনজেকশনের স্থানে ব্যথা হলো সবচেয়ে প্রচলিত কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার প্রকাশ করে। এমন অনেকে আছেন যাদের ক্ষেত্রে কোনো উপসর্গ দেখা দেয় না। করোনাভাইরাসের টিকা সম্পর্কে মানুষের কৌতুহল আগের চেয়ে আরও বেড়েছে। টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলো ভাইরাসের বিরুদ্ধে সুরক্ষার মাত্রা নির্ধারণ করে কি না তা সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্ন মনে আসছে।

টিকা নেওয়ার পর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ার অর্থ এই নয় যে আপনি একটি সংক্রমণ তৈরি করছেন। পরিবর্তে এটি ইঙ্গিত দেয় যে আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অচেনা রোগজীবাণু চিনতে শুরু করেছে এবং এই ভাইরাস কণার বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য অ্যান্টিবডি তৈরি করতে শুরু করেছে।

কখন সতর্ক হওয়া উচিত?

ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া করোনাভাইরাস সংক্রমণের মতো গুরুতর বা সংশ্লিষ্ট নয়। জ্বর, অস্থিরতা, বাহুতে ব্যথা টিকা দেওয়ার পরে সবচেয়ে সাধারণ। তবে যদি কোনো ব্যক্তি টিকা দেওয়ার বিশ দিনের মধ্যে তাদের নতুন কোনো উপসর্গ অনুভব করে, তবে তাদের সতর্ক হতে হবে এবং অবিলম্বে একজন ডাক্তারের কাছে যেতে হবে।

কোন লক্ষণগুলো অস্বাভাবিক?

করোনার টিকা নেওয়ার পর কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া স্বাভাবিক হলেও বিশেষজ্ঞরা কিছু লক্ষণ অস্বাভাবিক বলে উল্লেখ করেছেন। যেগুলো পরবর্তীতে আশঙ্কাজনক পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে। সেক্ষেত্রে অবশ্যই দ্রুত চিকিৎসা নিতে হবে। জেনে নিন সেই লক্ষণগুলো সম্পর্কে-

* শ্বাসকষ্ট বা শ্বাস নিতে সমস্যা।

* বুক ব্যথা।

* বমি বমি ভাব, বমি বা পেটে ক্রমাগত ব্যথা।

* খিঁচুনি।

* শরীরে ব্যথা বা বাহু বা পা ফুলে যাওয়া।

* ঝাপসা দৃষ্টি।

* তীব্র বা ক্রমাগত মাথাব্যথা।

* শরীরের কোন অংশে দুর্বলতা।

* ইনজেকশনের জায়গায় দাগ।

ভ্যাকসিনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া না কি করোনাভাইরাস সংক্রমণ, কোনটি বেশি ক্ষতি করে?

করোনার টিকা নেওয়ার পর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যেমনই হোক, বিশেষজ্ঞরা মনে করেন যে করোনায় সংক্রমিত হওয়া আরও বিপজ্জনক হতে পারে। টিকা গ্রহণ করলে তা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে। টিকা না নেওয়া ব্যক্তিরা আরও বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন। যারা টিকা দিয়েছেন তাদের এখনও গুরুতর সংক্রমণের ঝুঁকি কম।

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন অনুসারে, টিকা না নেওয়া ব্যক্তিদের করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সম্ভাবনা দশ গুণ বেশি এবং টিকা দেওয়া ব্যক্তির তুলনায় মৃত্যুঝুঁকি দশ গুণ বেশি। এ থেকে স্পষ্ট বোঝা যায় যে এই মারাত্মক ভাইরাস থেকে নিজের এবং আমাদের প্রিয়জনের স্বাস্থ্য সুরক্ষার একমাত্র সঠিক উপায় হলো টিকা।