সুস্থ থাকতে এই গরমে এটি খান!

অনেকেই পেঁয়াজকে নিছকই রান্নার কাজে ব্যবহৃত মসলা মনে করেন। এছাড়া এর উটকো গন্ধ আর ঝাঁঝের কথা ভেবে কেউ কেউ আবার ভ্রু কুচকান। যে জিনিসের গুণ এত, তার ঝাঁঝ তো একটু হবেই। মূলত এর উপকারীতা সম্পর্কে অনেকেরই জ্ঞান শুণ্যের কোঠাই। তাতে কী, এবার তাহলে জেনে নেয়া যাক কি কি গুণে সমৃদ্ধ পেঁয়াজ, আর যে কারণে গরমে খাবেন পেঁয়াজ।

চিকিৎসকদের পরামর্শ, গরমে প্রতিদিন অন্তত ১০০ থেকে ১৫০ গ্রাম পেঁয়াজ খাওয়া উচিত। জ্বর, ঠান্ডা, ব্যথা,অ্যালার্জি, ডায়াবেটিস, হার্টের কার্যক্ষমতা ও কার্ডিভাসকুলার ফাংশন ঠিকঠাক রাখতে পেঁয়াজের জুড়ি নেই।

যে কারণে গরমে পেঁয়াজ খাওয়া ভালো: এই গেরমে অতিষ্ট জনজীবণ। যাদের হাঁপানির সমস্যা আছে, ধুলা-বালি আর গরমের কারণে তাদের অবস্থা শোচনীয় হয় সবচেয়ে বেশি। প্রচণ্ড গরমে হঠাৎ জল পান করলে সর্দি হয়। এ সময় খাবার অথবা সালাদের সঙ্গে কাঁচা পেঁয়াজ খেলে পিপাসা কম লাগবে এবং হিটস্ট্রোকের ভয় থাকে না।

এছাড়া ঝুঁকি কমাতে প্রতিদিন কাঁচা পেঁয়াজ খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এতে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। যা প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। ভিটামিন সি ও সালফার বিদ্যমান থাকায় যেকোনও ব্যাকটেরিয়াল, ভাইরাল ইনফেকশন কমাতে পারে পেঁয়াজ।

কাঁচা পেঁয়াজ যেভাবে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: পেঁয়াজে ফ্লেভোনয়েড, ফোলেট বি-৯ এবং পাইরিডক্সিন বি-৬ এর পাশাপাশি ট্রেস খনিজে সমৃদ্ধ। এই সবকটি উপাদান বিপাক, লাল রক্ত কোষের উৎপাদন এবং স্নায়ু কার্যক্রমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এতে পর্যাপ্ত পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। একটি সমীক্ষা অনুসারে, ৫টিরও বেশি বিভিন্ন ধরনের ফ্ল্যাভোনয়েড অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে, যা কোষ তৈরি এবং প্রতিরোধ ক্ষমতা জোরদার করতে সহায়তা করে।

যেভাবে কাঁচা পেঁয়াজ খাবেন: সাধারণত মানুষ রান্নার সময় পেঁয়াজ ব্যবহার করে। তবে লাঞ্চ ও ডিনারে সালাদ হিসেবে এটি কাঁচা খেতে পারেন। এভাবে প্রতিদিন কাঁচা পেঁয়াজ খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে পারেন। এটি আপনাকে খাবারের স্বাদ এবং পুষ্টি উভয়ই সরবরাহ করবে।করোনার সংক্রমণ রোধ করতে আপনার ডায়েটে অবশ্যই পেঁয়াজ অন্তর্ভুক্ত করা উচিত। করোনার সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন লক্ষণ থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।