নতুন মায়েদের মেজাজ ঠিক রাখতে যা করণীয়

Young mother, holding her sick toddler boy, hugging him at home, sunny living room

বেশিরভাগ মায়েদেরই সন্তান জন্ম নেয়ার পর মেজাজ খিটখিটে থাকে। মায়েদের খিটখিটে ভাব বা হতাশার জন্য মূলত দায়ি নিয়মিত ঘুম না হওয়া, বিশ্রাম না পাওয়া কিংবা স্বামী সঙ্গ কম পাওয়া।

তাই মায়েরা নিজেদের মেজাজ ঠিক রাখতে যা করবেন সেসব নিয়েই আজকের আলোচনা-

স্বামীর সঙ্গে একান্ত সময় কাটানো
একটা বিষয় পরিস্কার মনে রাখবেন, স্বামী যদি আপনাকে ভালবাসে তবে তার সান্নিধ্যেই আপনার বেশিরভাগ মানষিক রোগ ভাল হয়ে যাওয়ার কথা। তার সঙ্গে সব কথা মন খুলে শেয়ার করুন দেখবেন আপনি অনেক হালকা হয়ে গেছেন। তিনি আপনাকে যে মানষিক সাপোর্ট দিতে পারবেন তা আর কেউ দিতে পারবে না। তাই তার সঙ্গে একান্ত সময়ে আপনার খারাপ লাগা, অস্বস্তির কথাগুলো বলুন। দেখবেন আপনিই অনেকটাই নির্ভার বোধ করছেন।

শারীরিক সম্পর্ক নিয়মিত করুন
স্বামীর সঙ্গে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্ক দুজনকেই অনেক মানষিক চাপ থেকে মুক্তি দয়ে, এটাতো গবেষণায় প্রমানিত। তাই স্বামীর সঙ্গে নিয়মিত শারীিরিক সম্পর্কে মিলিত হোন। এতে আপনি সাময়িক মানষিক ডিপ্রেশন থেকে রেহাই পাবেন। দুজনের মধ্যে একটা চমৎকার বোঝাপড়া গড়ে ওঠবে, যা আপনাকে হতাশা কাটাতে সাহায্য করবে।

নিজেকে ফ্রেস রাখুন ও উপভোগ করুন
সন্তান জন্ম দেয়ার পরের মানষিক বিষন্নতা কাটানোর জন্য আপনাকেই সমাধান খুঁজতে হবে। শিশুর সাথে সাথে আপনার প্রিয় মানুষটির জন্যও কিছু সময় বের করুন। স্বামী যখন বাসায় থাকে তখন তাকে আলাদা করে সময় দিন। শিশু ঘুমিয়ে গেলে স্বামীর সাথে গল্পে মাতুন। এক সাথে টিভি দেখুন। তার পছন্দের খাবার তৈরি করে দিন। সে যেদিন বাসায় থাকে সেদিন একটু সাজগোজ করে তাঁকে আনন্দ দিন। দেখবেন স্বামীকে খুশি করতে গিয়ে আপনার মনও ভালো হয়ে গেছে।

নিজের ঘুমের জন্য সময় বের করা
মায়েদের খিটখেটে মেজাজ হওয়ার অন্যতম কারণ ঘুম কম হওয়া। তাই সব কাজের মধ্যেই আপনাকে ঘুমের সময় বের করতে হবে। আপনার কাজগুলোকে সঠিকভাবে বিন্যাস করতে হবে। বাবু যখন ঘুমাবে তখন আপনিও ওর সঙ্গে ঘুমিয়ে নেবেন। এজন্য পরিবারের অন্য সদস্যদের মাকে সহযোগিতা করতে হবে। শিশুর মা যেনো পর্যাপ্ত ঘুমানোর সুযোগ পায় সেই ব্যবস্থা নিতে হবে।
আরো পড়ুন:- প্রতিদিন কতটা ফাইবার খাচ্ছেন?